৫০ বছর পর অস্ট্রেলিয়া গড়ে তুলছে নিজস্ব স্পেস এজেন্সি

২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ অঙ্গার ২০৬

ইশকুল , , ,

“অস্ট্রেলিয়া যে নিজস্ব স্পেস এজেন্সি যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে এটা নিঃসন্দেহে একটা দারুণ খবর” উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে জানালেন মাইকেল ব্রাউন। ব্রাউন মেলবোর্নের মনাশ বিশ্ববিদ্যালয়ের খ্যাতনামা জ্যোতির্বিদ। বেশ কিছু বিশ্ববিদ্যালয়, শিল্পকারখানা আর সরকারি প্রতিনিধিদের নিয়ে গঠিত ভিন্ন ভিন্ন কয়েকটা দলের এক বছরের লম্বা প্রচার-প্রচারণার ফলাফল হিশেবেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দেশটির সরকার।

 

IAC কংগ্রেসে সাইমন বার্মিংহাম

৬৮তম IAC কংগ্রেসে সিনেটর সাইমন বার্মিংহাম অস্ট্রেলিয়ার ন্যাশনাল স্পেস এজেন্সি তৈরির ঘোষণা দেন

 

গত ২৫ সেপ্টেম্বর অ্যাডিলেডে অনুষ্ঠিত ৬৮ তম ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনটিক্যাল কংগ্রেসে অস্ট্রেলিয়া সরকার এই ঘোষণা দিয়েছেন।

 

International Astronautical Congress এর ব্যানার

International Astronautical Congress এর ওয়েবসাইট ব্যানার

 

যোগাযোগ, রিমোট সেন্সিং কিংবা মহাকাশ গবেষণার ক্ষেত্রে এদ্দিন পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া যেসব স্যাটেলাইট ব্যবহার করতো সেগুলো তৈরি এবং পরিচালিত হত বৈদেশিক সাহায্যের ভিত্তিতে। জাপান থেকে ছোড়া অস্ট্রেলিয়ার শেষ মাইক্রোস্যাটেলাইটটিও অকেজো হয়ে গেছে সেই ২০০৭ সালে। পুরো বিশ্বের ৩৩০ বিলিয়ন ডলারের মহাকাশ অর্থনীতিতে অস্ট্রেলিয়া অবদান ১% এর চেয়েও কম। 

অথচ যুক্তরাষ্ট্র এবং সোভিয়েত রাশিয়ার পর অস্ট্রেলিয়া ছিল তৃতীয় দেশ যারা নিজেদের মাটি থেকেই নিজস্ব স্যাটেলাইট পাঠিয়েছিল পৃথিবীর কক্ষপথে। ১৯৬০-৭০ এর দিকে ‘স্পেস রেসে’ আরও কয়েকটা দেশ যেমন কানাডা, যুক্তরাজ্য, ইতালি অংশগ্রহণ করলেও এদের সবাই যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি রকেট ব্যবহার করেছিল।

 

WRESAT এর উড্ডয়ন

WRESAT এর উড্ডয়ন

 

মিলিটারি নিয়ন্ত্রিত ঊমেরা রেঞ্জ থেকে নিক্ষেপিত হয়েছিল WRESAT

মিলিটারি নিয়ন্ত্রিত ঊমেরা রেঞ্জ থেকে নিক্ষেপিত হয়েছিল WRESAT, এ জায়গাটি সর্বসাধারণের জন্য নিষিদ্ধ

 

১৯৬৭ সালের ২৯ নভেম্বর অস্ট্রেলিয়া Weapons Research Establishment Satellite (WRESAT) একটি স্যাটেলাইট নিক্ষেপ করেছিল। WRESAT পৃথিবীর কক্ষপথে পাঠাতে মার্কিন রেডস্টোন রকেটের একটি মডিফাইড ভার্সন ব্যবহার করেছিল অস্ট্রেলিয়া।

 

WRESAT এর নির্মাণ কাজ চলছে Weapons Research Establishment এ

WRESAT এর নির্মাণ কাজ চলছে Weapons Research Establishment এ

 

কিন্তু WRESAT কিছু যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে কক্ষপথ ছেড়ে পৃথিবীর  বায়ুমণ্ডলে ঢুকে পড়ে। ১৯৬৮ সালের ১০ জানুয়ারি সমুদ্রের বুকে আছড়ে পড়ার আগে WRESAT পৃথিবীকে মোট ৬৪২ বার প্রদক্ষিণ করেছিল। স্যাটেলাইটটি প্রথম ৭৩ বার প্রদক্ষিণ করার সময় পর্যন্ত ঠিকঠাক তথ্য, উপাত্ত পাঠিয়েছিল।

WRESAT দুর্ঘটনার পর অস্ট্রেলিয়া স্পেস রেস থেকে দূরে সরে আসে। তারপর বহু বছর অস্ট্রেলিয়া মহাকাশ গবেষণায় খুব একটা মনোনিবেশ করে নি।  কিন্তু এখন আবার সময় এসেছে, বললেন মেলবোর্নের সুইনবার্ন প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এলান ডাফি। WRESAT প্রেরণের ৫০ বছর পূর্তিকে স্মরণীয় করে রাখতেই অসি সরকার এই বিশেষ পদক্ষেপ নিয়েছে।

মন্তব্য করুন

×